Magic Lanthon

               

প্রকাশিত ১৫ জানুয়ারী ২০২৪ ১২:০০ মিনিট

অন্যকে জানাতে পারেন:

‘আমার এ দুটি চোখ পাথর তো নয়’ গানের গীতিকার আর নেই

কালজয়ী বাংলা গান 'আমার এ দুটি চোখ পাথর তো নয়, তবু কেন ক্ষয়ে ক্ষয়ে যায়?'সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের গীতিকার ও কবি জাহিদুল হক আর নেই  (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।  আজ সোমবার দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

কবির ভগ্নীপতি কাজী জাহিদ হাসান গণমাধ্যমে জানান, ১ জানুয়ারি তার শরীর বেশ খারাপ হয়ে যাওয়ায় পরিবারের সদস্যরা তাকে প্রথমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে যায়। দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান জাহিদুল স্ট্রোক করেছেন। দুই দিন পর সেখান থেকে তাকে ঢাকা মিডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আজ দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে চিকিসাধীন অবস্থায় মারা যান প্রখ্যাত এই কবি।

কবি ও গীতিকার হিসেবে পরিচিতি পাওয়া জাহিদুল হক ১১ আগস্ট ১৯৪৯ সালে চিকিৎসক পিতার কর্মস্থল ভারতের আসামের বদরপুর রেলওয়ে হাসপাতালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পৈত্রিক নিবাস কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নের আকদিয়া গ্রামে। গ্রামের স্কুলে হাতেখড়ির পর চট্টগ্রামের নগেন্দ্রচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৬৩ সালে মাধ্যমিক এবং ১৯৬৬ সালে ফেনী সরকারি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৬৯ সালে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

দীর্ঘ কর্মজীবনে বাংলা একাডেমির একজন ফেলাে ও রেডিও ডয়েচে-ভেলের সিনিয়র এডিটর ও ব্রডকাস্টার হিসেবে কাজ করেছেন কবি জাহিদুল হক। ছিলেন দৈনিক সংবাদের সিনিয়র সহকারি সম্পাদক। এছাড়া বাংলাদেশ বেতারে তিনি উপমহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। একই সঙ্গে বাংলাদেশ বেতার থেকে প্রকাশিত ‘বেতার বাংলা পত্রিকার সম্পাদনার দায়িত্বও পালন করেছেন। তিনি টানা চার বছর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্য ছিলেন।

জাহিদুল হকের কবিতা, উপন্যাস, ছোটগল্প ও গান মিলিয়ে প্রকাশিত গ্রন্থের সংখ্যা ১৮টি। ১৯৮২ সালে তার প্রথম কবিতার বই 'পকেট ভর্তি মেঘ' প্রকাশ হয়। এছাড়াও তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে তোমার হোমার, নীল দুতাবাস ও এ উৎসবে আমি একা।

কবিতার পাশাপাশি তিনি অসংখ্য গানও রচনা করেছেন। ‘আমার এ দুটি চোখ পাথর তো নয়-সুবীর নন্দীর কণ্ঠের জনপ্রিয় এ গানটি ছাড়াও তার উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে রয়েছে, ‘স্বাধীনতা তুমি আমার বাড়িতে এসো (শিল্পী- শাম্মী আখতার), ‘স্বপ্ন আমার কাজল পুকুর তুমি (শিল্পী- এন্ড্রু কিশোর), ‘যে দেশে বাতাস স্মৃতির স্পর্শে ভারী (শিল্পী- সুবীর নন্দী ও সামিনা চৌধুরী), ‘তোমার প্রিয়তমার কাছে তুমি ছিলে মনোহর (শিল্পী- সামিনা চৌধুরী), ‘কতোদিন পরে দেখা, ভালো আছো তো (শিল্পী- হাসিনা মমতাজ ও মোহাম্মদ হান্নান), ‘আমি তোমার ভালোবাসার খাঁচায় ধরা দেবো (শিল্পী- রুনা লায়লা) প্রভৃতি।

বাংলা কবিতায় বিশেষ অবদানের জন্য ২০০২ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার পান কবি জাহিদুল।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন